সৌন্দর্যের নতুন সংজ্ঞা

0
8

অনলাইন ডেস্কঃ ফেসবুক থেকে ইনস্টাগ্রাম… সর্বত্রই ট্রেন্ড ‘ফ্লসাম ইজ় অসাম’। তবে কিছু কিছু খুঁত যেন আত্মবিশ্বাসে ভাঙন ধরায়। আর নিজের খুঁত যেন বেশি করে চোখে পড়ে সাজার সময়ে। কারও থুতনি সরু, কারও জ’লাইন খুব স্ট্রং, কারও খুব চওড়া কপাল তো কারও গাল ভারী। কিন্তু কখনও কি ভেবে দেখেছেন, এটিই আপনাকে অন্যদের চেয়ে আলাদা করে তুলছে। তাই চেহারার খুঁত নিয়ে বিচলিত হবেন না। বরং সেটাকে তার মতো রেখেই সাজুন। চেহারার সঙ্গে মানানসই সাজ বেছে নিন। তৈরি হোক সৌন্দর্যের নতুন সংজ্ঞা।

নিজেকে চিনুন

আয়নার সামনে দাঁড়িয়ে চুলটা টেনে বেঁধে নিজের মুখটা ভাল করে দেখুন। হয়তো মনে হবে গাল ভারী বা চোয়ালটা যেন বড্ড ছুঁচলো। কিন্তু এই পর্যবেক্ষণও জরুরি। এর পরেই শুরু হবে আসল কাজ। বাঁধা গতে সৌন্দর্যের সংজ্ঞায় নিজের চেহারাকে বসিয়ে হতাশ হবেন না। বরং ছকভাঙা সৌন্দর্যে আকর্ষক হয়ে ওঠার জন্য প্রস্তুত হন। অন্যের সাজের ধরন অনুকরণ না করে নিজেকে যেমন সাজলে ভাল দেখায়, সেটি বেছে নিন। কারণ প্রত্যেকের ফিচার আলাদা, সেই মতো সাজও আলাদা হবে।

• মেকআপ আর্টিস্ট সন্দীপ নিয়োগী বললেন, ‘‘প্রত্যেকেরই নিজের চেহারা নিয়ে কিছু না কিছু নিয়ে অভিযোগ থাকে। যেটা খুঁত মনে হচ্ছে, সেটাকে ছেড়ে বাকি ফিচারগুলোর দিকে মন দিন। ত্বক ও চুলের যত্ন নিন। ত্বক যদি নিয়মিত ময়শ্চারাইজ় করা হয়, এসেনশিয়াল অয়েল লাগানো যায়, তা হলে তা এমনিই সুন্দর দেখায়। বেশি মেকআপের প্রয়োজন পড়ে না। চুলের ক্ষেত্রেও তাই। অনেকে কোঁকড়া চুল নিয়েও বিরক্ত হন। কিন্তু অনেকেরই সাজের সময়ে কার্লি হেয়ারে সেরাম লাগিয়ে সুন্দর করে সেট করে দেওয়া হয়। অন্যদের চেয়ে আলাদা দেখতে লাগে। তা ছাড়া এখন সৌন্দর্যের সংজ্ঞাও বদলাচ্ছে। আমরা এমন ক্লায়েন্টও পাই যাঁরা মুখে ফ্রেকলস রেখেই মেকআপ করতে বলেন। সেটা আড়াল করেন না। এখন তো মেকআপে ফ্রেকলস ক্রিয়েটও করা হয়। অনেকেই ভ্রু প্লাক করেন না। যেমন ভ্রু, তেমন থাকুক না। সাজার সময়ে ব্রো ব্রাশ করে একটু জেল লাগিয়ে নিন। আসল কথা হচ্ছে যত্ন আর পরিপাটি সাজ।’’
• কারও কারও চোয়ালের হাড় উঁচু। মেকআপ করে চুল টেনে বাঁধলে তা আরও স্পষ্ট হয়ে ওঠে। করিনা কপূর খান, অ্যাঞ্জেলিনা জোলি… এঁদের মুখের কাট লক্ষ করলেও একই আকার ধরা পড়বে। এই স্ট্রং জ’লাইনই কিন্তু এই তারকাদ্বয়ের সৌন্দর্যে অন্য মাত্রা যোগ করেছে। সাজার সময়ে বরং জ’লাইনে কন্টুরিং করে নিন। দেখবেন এটাই হবে আপনার ইউএসপি। চুল টেনে বাঁধলেও দু’চার গাছা চুল আলগা করে দু’দিক থেকে খুলে ফেলে রাখুন মুখের দু’পাশে। জ’লাইনের উপরে খোলা চুল আপনার লুককে কমপ্লিমেন্ট করবে।

• অনেকের মুখ আবার সরু হয়। চুল খুলে রাখলেও সরু দেখায়, বাঁধলেও তা আরও স্পষ্ট হয়ে ওঠে। চুল পেতে আঁচড়ে নিয়ে আলগা খোঁপা করুন ঘাড়ের কাছে। আর কানে লম্বা ঝোলা দুল পরুন। দেখবেন আপনার চেহারায় অন্য মাত্রা আনবে। রাউন্ড শেপের দুল বাছতে পারেন।
• কপাল চওড়া হলেও জানবেন আপনার কোর্টে বল। উৎসব-অনুষ্ঠানে ভারী টিকলি পরতে পারবেন। সামনে একটু ফ্রিঞ্জ কেটে নিলে ওয়েস্টার্নেও হিট। চুলের কাট বা টিকলি কোনও কিছুই না চাইলে চুল আঁচড়ানোর ধরন বদলান। মাথার ক্রাউন এরিয়া থেকে কিছুটা চুল কপালের দিকে আঁচড়ান। তা কপালের উপর দিয়ে নিয়ে গিয়ে কানের পাশে ক্লিপ করে দিন। এ বার বাকি চুলে যা-ইচ্ছে স্টাইল করুন। অনেকের কপাল খুব ছোট। বড় টিকলি পরতে গেলেও দু’বার ভাবতে হয়। রাজস্থানি কায়দার টিকলি পরতে পারেন। একদম ইউনিক লুক পাবেন। আর চুল আঁচড়ানোর সময়েও পিছন দিকে টেনে বাঁধুন বা দু’পাশে ক্লিপ করে চুল খুলে দিন, শুধু কপালটা ডিফাইন করে দিতে হবে। কপাল ছোট বলে ফ্রিঞ্জ কাটতে পিছপা হবেন না। ফ্রিঞ্জও কাটুন, একটু হালকা রাখুন।

মেকআপ করার আগে

সংগ্রহে কস্টিউম, রুপো, সোনা, কুন্দনের গয়না থাকলেও পোশাকের সঙ্গে মানানসই গয়নাটিই শুধু বেছে নেওয়া হয়। পার্টির পোশাকে একসঙ্গে সব ধরনের গয়না কি পরা হয়? মেকআপের ক্ষেত্রেও একই কথা প্রযোজ্য। আইলাইনার, আইশ্যাডো, কাজল, মাসকারা, লিপস্টিক, লিপগ্লস… সব কিছু একসঙ্গে প্রয়োগ করবেন না। নিজের লুককে ফুটিয়ে তুলতে যেটুকু দরকার, সেটুকুই মেকআপ করুন। মেকআপ আর্টিস্ট মৈনাক দাসের কথায়, ‘‘ধরুন কারও গাল ভারী, মেকআপের সময়ে চুলটা এমন ভাবে বাঁধা হয়, যাতে ভারী ভাবটায় আর চোখ যায় না। আবার কারও ডার্ক সার্কল রয়েছে চোখের নীচে, খুব ক্লান্ত দেখাচ্ছে। শুধু সেখানেই টাচআপ করা হয়। ঠিক যেটুকু দরকার, সেটুকুই মেকআপ। প্রত্যেকের মুখের ধরন আলাদা, সেটাই তাঁর বৈশিষ্ট্য। সেটাকে খুঁত বলব না। প্রত্যেকের মুখের ধরন মাথায় রেখেই মেকআপ করা হয়। আর এখন প্রত্যেকেই ত্বক ও চুলের যত্ন নেন। ফলে বেসটাই এত সুন্দর থাকে যে, খুব চড়া মেকআপের কনসেপ্ট এখন নেই। ’’

• বড় চোখে আইলাইনার, কাজল… সব পরার দরকার নেই। আইশ্যাডোর সঙ্গে মাসকারা লাগিয়ে নিলে ভাল দেখাবে। চোখ ছোট হলে আইলাইনার, কাজল একসঙ্গে পরবেন না। চোখ আরও ছোট দেখাবে। বরং লাইনার দিয়ে আউটলাইন করে নিন।
• অনেকের দাঁত বা মাড়ি উঁচু বলে লিপস্টিকে হাল্কা রং বাছেন। দাঁত হোক না একটু উঁচু, ক্ষতি কী! মুখে বেস করে লিপ লাইন করে লিপস্টিক পরুন। শেড বাছুন পোশাকের সঙ্গে মিলিয়ে। মুখ চেপে বন্ধ করার চেষ্টা না করে স্বচ্ছন্দে হাসুন।
• টিকালো নাক না হওয়ার দুঃখও আছে অনেকের। কন্টুরিং করে হাইলাইটার লাগিয়ে দেখুন তো! দিব্যি সুন্দর দেখাবে।

তবে সাজের সঙ্গে প্রয়োজন ষোলোআনা আত্মবিশ্বাস। আপনি যদি নিজেকে গ্রহণ করতে পারেন, তখনই কিন্তু পৃথিবী আপনাকে আপনার মতো করেই গ্রহণ করবে। তাই নিজেকে কেমন দেখতে, তা নিয়ে বিচলিত হবেন না। মেকআপ করার কায়দা জানুন আর নিজের সাজে বুলিয়ে নিন আত্মবিশ্বাসের ম্যাজিক ওয়্যান্ড। আয়নার সামনে দাঁড়িয়ে দেখবেন, আপনিই সুন্দর।
সূত্র-আনন্দবাজার পত্রিকা

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here