সেতাবগঞ্জ পৌরসভা নির্বাচন ১১ এপ্রিল

0
16

বিশেষ প্রতিবেদনঃ দীর্ঘ অপেক্ষার পর সেতাবগঞ্জ পৌরসভা নির্বাচন অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে ১১ এপ্রিল। নির্বাচন কমিশনের ঘোষিত তফসিলের তথ্যমতে, একটি সংসদীয় আসন, ১১টি পৌরসভা ও ৩৭১টি ইউনিয়ন পরিষদের ভোট গ্রহন হতে যাচ্ছে ১১ এপ্রিল। ঘোষিত ১১টি পৌরসভার মধ্যে দিনাজপুর জেলার বোচাগঞ্জ উপজেলাধীন সেতাবগঞ্জ পৌরসভা রয়েছে। তফসিলের তথ্য মতে, মনোনয়নপত্র দাখিল করার শেষ সময় ১৮মার্চ, মনোনয়ন বাছাই ১৯মার্চ ও প্রত্যাহারের শেষ তারিখ ২৪শে মার্চ ২০২১। ভোট গ্রহন সম্পন্ন হবে ১১ এপ্রিল ২০২১।

হাইকোর্টে মামলা নিষ্পত্তি না হওয়া এবং পৌরসভার এলাকা সম্প্রসারণ ও ওয়ার্ড বিভক্তিকরণ সংশ্লিষ্ট কার্যক্রমের জন্য দীর্ঘদিন ধরে সেতাবগঞ্জ পৌরসভার ভোট বন্ধ ছিল। ফলে, দীর্ঘ একটা সময় ধরে উক্ত পৌরসভার মেয়র হিসেবে দায়িত্ব পালন করে আসছেন আব্দুস সবুর।

গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার ১৯৯৬ ইং সালে পৌরসভা অধ্যাদেশ ১৯৭৭”এ  প্রদত্ত ক্ষমতা বলে দিনাজপুর জেলাধীন বোচাগঞ্জ উপজেলার ৩নং মুশিদহাট ইউনিয়ন পরিষদকে (আংশিক) নগর এলাকা হিসেবে ঘোষনা করে । নগর বাসীকে বিভিন্ন ধরনের নাগরিক সুবিধা প্রদান এবং জীবন যাত্রার মানোন্নয়ন করার জন্য প্রতিষ্ঠিত হয় এই সেতাবগঞ্জ পৌরসভা। প্রাথমিক পর্যায়ে এটি ‘গ’ শ্রেনীর পৌরসভা হিসেবে আত্ম প্রকাশ করে। পরবর্তীতে এর উন্নয়নের ধারা অব্যাহত থাকায় ও সর্বস্তরের জনগণের সর্বাত্বক সহযোগীতায় এবং পৌর পরিষদের প্রাণপন প্রচেষ্টার ফলে ২০০১ইং সালে সেতাবগঞ্জ পৌরসভা ‘খ’ শ্রেনীর পৌরসভায় উন্নীত হয়। পৌরসভাটির  মোট আয়তন ১৫.২৩ বর্গকিলোমিটার। পৌরসভাটি ৯টি ওয়ার্ডে বিভক্ত।

সেতাবগঞ্জ পৌরসভার একটি সু-দৃশ্য দ্বিতল ভবন রয়েছে। যেখানে পৌরসভার সকল প্রকার প্রশাসনিক ও সেবামূলক কার্য্য সমূহ সুনিয়ন্ত্রিত ভাবে পরিচালিত হয়। সকল প্রকার কার্য্য পরিচালনার জন্য বর্তমানে ৪৪ জন কর্মকর্তা এবং কর্মচারী রয়েছে।
সেতাবগঞ্জ পৌরসভায় একটি সাপ্তাহিক বড় ধরনের হাট রয়েছে । সেই সাথে রয়েছে একটি উত্তর বঙ্গের দ্বিতীয় বৃহত্তম চিনিকল (সেতাবগঞ্জ সুগার মিলস্ লি:)। এখানে রয়েছে ১২ টি অটো রাইস মিলস্ , ২৩৭ টি  হাসকিং মিলস্, একটি কেন্দ্রীয় ঈদগাহ্ মাঠ, একটি  সৌন্দয্য মন্ডিত স্মৃতিসৌধ, একটি নয়নাভিরাম কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার, ৫০ সর্য্যা বিশিষ্ট একটি সরকারী হাসপাতাল, একটি স্বাস্থ্য সেবা কেন্দ্র (ডায়বেটিস হাসপাতাল), একটি ফায়ার সারর্ভিস ষ্টেশন, একটি অডিটরিয়াম কাম-কমিউনিটি সেন্টার, দুই টি পাইলট উচ্চ বিদ্যালয় (একটি সরকারি), একটি মহিলা কলেজ ও একটি সরকারি কলেজ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here